1. admin@doinikutshorgobangla.com : admin : Utshorgo Bangla
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:৫৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঢাকা উত্তর জোন কমিটি গঠন। রাজশাহীর পুঠিয়ায় বিএনপি,জামাত এর নৈরাজ্যর প্রতিবাদে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুঠিত। আওয়ামী লীগ নেতা আতিকের বাগাতিপাড়ায় উন্নয়ন প্রচার মিছিল অনুষ্ঠিত। কালিহাতীতে যুব লীগের শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কুড়িগ্রামে ০৯ কেজি গাঁজা উদ্ধারসহ ২জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘সেভ লাইফ রক্তদান সংস্থা’ এর বৃক্ষরোপন কর্মসূচী। বাগাতিপাড়ায় আওয়ামী লীগ নেতা আতিকের উন্নয়ন প্রচার মিছিল অনুষ্ঠিত। হোসেনপুরে স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল গৃহবধূর। উন্নয়নের ধারা যখন স্রতেরমত বয়ে চলছে, তখন দেশবিরোধী করে কোন লাভ নাই -এমপি মনসুর রহমান। লালপুরে চিকিৎসকে ধর্ষণের চেষ্টা ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ।

ব্রহ্মপুত্রের ডান তীর রক্ষা বাঁধে ধস।

মো সজিব ইসলাম রাজারহাট উপজেলা প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম।
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৯৩ বার পঠিত

মো সজিব ইসলাম রাজারহাট উপজেলা প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম।

বিপদসীমা ছুঁতে যাওয়া ব্রহ্মপুত্রের ঘূর্ণি স্রো‌তে কুড়িগ্রামের চিলমারীর কাঁচকোল এলাকায় এর ডান তীর রক্ষা বাঁধে ধস দেখা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) দুপুরের দিকে উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের কাঁচকোল এলাকায় প্রায় ৩০ মিটার অংশ জুড়ে এ ধস দেখা দেয়।

খবর পেয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পাউবো, কুড়িগ্রামের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, ২০১৭ সালে উলিপুর উপজেলার অংশ থেকে চিলমারী পর্যন্ত ব্রহ্মপুত্রের ডান তীরে প্রায় সাড়ে ছয় কিলোমিটার এলাকাজুড়ে তীররক্ষা কাজ সম্পন্ন করে পাউবো। এতে ব্যয় হয় প্রায় ২৪৪ কোটি টাকা।

পাউবো জানায়, কয়েকদিনের লাগাতার পানি বৃদ্ধির কারণে ব্রহ্মপুত্র ফুঁসে উঠছে। গত কয়েক বছর প্রকল্প এলাকা থেকে কিছুটা দূরে থাকলেও চলতি বছর নদের প্রবাহ চিলমারী অংশে ডান তীরের নিকটবর্তী চলে আসে। তীরের কাছে নদের গভীরতা আকস্মিক বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে কাঁচকোল এলাকায় তীর রক্ষা বাঁধের ৩০ মিটার অংশে বৃহস্পতিবার হঠাৎ ধস দেখা দিয়েছে। খবর পাওয়া মাত্র সেখানে বালুভর্তি জিও ব্যাগ ফেলা শুরু করা হয়েছে।

রাণীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, ‘বাঁধটি রক্ষা করতে না পারলে ইউনিয়নের প্রায় অর্ধেক এলাকা ভাঙন ঝুঁকিতে পড়বে। বসতি ও ফসলি জমি হারিয়ে তারা নিঃস্ব হবে কয়েকশ পরিবার।’

পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, হঠাৎ ধস দেখা দেওয়ায় ওই অংশে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত বালুভর্তি প্রায় এক হাজার জিও ব্যাগ ডাম্পিং করা হয়েছে। ঝুঁকি কমাতে রাতেও ডাম্পিংয়ের কাজ চলবে। ঘটনাস্থলে পাউবোর কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন।

তিনি বলেন, ‘পরীক্ষা করে দেখা গেছে ধসে যাওয়া অংশে নদের গভীরতা প্রায় ২৫ দশমিক ৮৪ মিটার (প্রায় ৮৪ ফুট) পাওয়া গেছে। ধস ঠেকাতে যথাসাধ্য চেষ্টা করছি। যেকোনও পরিস্থিতি মোকাবিলায় ঘটনাস্থলে বালুভর্তি জিও ব্যাগ প্রস্তুত রাখা আছে। আশা করছি, ঝুঁকিমুক্ত করা সম্ভব হবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে এই নির্বাহী প্রকৌশলী বলেন, ‘ধস ঠেকানো না গেলে চিলমারীর তীর রক্ষা প্রকল্পটি ঝুঁকিতে পড়তে পারে। তখন উপজেলার একটি বড় অংশ ভাঙন ঝুঁকিতে পড়তে পারে।

Facebook Comments Box
এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ দৈনিক উৎসর্গ বাংলা © অনুমতি ছাড়া এই ওয়েব সাইটে সংবাদ,আলোকচিত্র,অডিও,ভিডিও,যেকোনো লেখা,ছবি আপলোড ও কপি করা বে-আইনি এবং নিজস্ব নিউজ তৈরি সহ বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয়।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park