1. admin@doinikutshorgobangla.com : admin : Utshorgo Bangla
মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:৩৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঢাকা উত্তর জোন কমিটি গঠন। রাজশাহীর পুঠিয়ায় বিএনপি,জামাত এর নৈরাজ্যর প্রতিবাদে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুঠিত। আওয়ামী লীগ নেতা আতিকের বাগাতিপাড়ায় উন্নয়ন প্রচার মিছিল অনুষ্ঠিত। কালিহাতীতে যুব লীগের শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কুড়িগ্রামে ০৯ কেজি গাঁজা উদ্ধারসহ ২জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘সেভ লাইফ রক্তদান সংস্থা’ এর বৃক্ষরোপন কর্মসূচী। বাগাতিপাড়ায় আওয়ামী লীগ নেতা আতিকের উন্নয়ন প্রচার মিছিল অনুষ্ঠিত। হোসেনপুরে স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল গৃহবধূর। উন্নয়নের ধারা যখন স্রতেরমত বয়ে চলছে, তখন দেশবিরোধী করে কোন লাভ নাই -এমপি মনসুর রহমান। লালপুরে চিকিৎসকে ধর্ষণের চেষ্টা ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ।

কুড়িগ্রামে নারী ও নির্যাতন মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড।

মো সজিব ইসলাম রাজারহাট উপজেলা প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম।
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৩ আগস্ট, ২০২৩
  • ৫৮ বার পঠিত

কুড়িগ্রামে নারী ও নির্যাতন মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক এস.এম. নূরুল ইসলাম এ রায় প্রদান করেন।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি জাহাঙ্গীর আলম
যশোর জেলার মনিরামপুর থানার ভরতপুর গ্রামের আব্দুল গণি সর্দারের পুত্র। আসামি পলাতক থাকায় তার অনুপস্থিতিতে এ রায় প্রদান করা হয়।
নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোটে আব্দুর রাজ্জাক জানান, কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার উত্তর তিলাই গ্রামে লজিং মাস্টার হিসেবে কুরআন শরীফ শিক্ষা দিয়ে আসছিল জাহাঙ্গীর আলম। এসময় সেখানকার এক কিশোরীকে বিভিন্নভাবে প্রেমের প্রস্তাব দেয় আসামি। কিন্তু তার প্রেমের প্রস্তাবে মেয়েটি রাজি না হওয়ায় ২০১৫সালের ০২এপ্রিল জোর পূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যায় ও ধর্ষণ করে। এ ব্যাপারে কিশোরীর মা বাদী হয়ে ভূরুঙ্গামারী থানায় ৫ এপ্রিল একটি অপহরণ ও ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-৪। পরবর্তীতে মামলাটি নারী ও শিশু আদালতের অন্তর্ভূক্ত হয় যা নারী ও শিশু মামলা নং ১৬০/২০১৫। পরবর্তীতে কিশোরী উদ্ধার হয়ে আদালতে তাকে অপহরণ ও ধর্ষণ করার সাক্ষ্য দেয়। ঘটনার দিন থেকে আসামী পলাতক থাকায় চলতি বছরের ২৯জানুয়ারি এই মামলার শুনানি শেষ হয়। পরে আদালত আসামীর বিরুদ্ধে করা অভিযোগসমূহ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ২০০০ (সংশোধনী-২০২৩) এর ৭ ধারায় ১৪ বছর সশ্রম কারাদন্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ০৩ (তিন) মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং একই আইনের ৯ (১) ধারায় যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও দশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ০৬ (ছয়) মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করে রায় প্রদান করেন।

আসামী পলাতক থাকায় তারপক্ষে রাষ্ট্রপক্ষ নিযুক্ত অ্যাডভোকেট সরদার মো: তাজুল ইসলাম ও রাষ্ট্র পক্ষে পিপি অ্যাডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক মামলাটি পরিচালনা করেন।

Facebook Comments Box
এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩ দৈনিক উৎসর্গ বাংলা © অনুমতি ছাড়া এই ওয়েব সাইটে সংবাদ,আলোকচিত্র,অডিও,ভিডিও,যেকোনো লেখা,ছবি আপলোড ও কপি করা বে-আইনি এবং নিজস্ব নিউজ তৈরি সহ বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয়।
প্রযুক্তি সহায়তায় Shakil IT Park